বিশ্বের অদ্ভুত যত সব পাথর খণ্ড!

অন্যরকম খবর Jul 30, 2017 426 Views
Googleplus Pint
noimage

লাইকবিডি ডেস্ক: বিশ্বের কয়েকটি দেশে অদ্ভুত সব পাথরের সন্ধান পাওয়া গেছে। প্রাকৃতিকভাবে কোনো কোনো এলাকায় পাথরখণ্ড এমনভাবে ভারসাম্য বজায় রেখে দাঁড়িয়ে আছে, যা দেখলে বিশ্বাসই হয় না এভাবে বিশাল কোনো পাথরখণ্ড স্থিতিশীল থাকতে পারে। কিছু পাথরের আকৃতি মাশরুম, আবার কিছু জুতার মতো দেখতে। ভাসমান এক পাথরের কথাও শোনা যায়।

ব্যালান্সড রক, উতাহ :
আমেরিকার উতাহ প্রদেশের আরচেস ন্যাশনাল পার্কের প্রবেশপথ থেকে ৯ মাইল ভেতরে এই পাথরটি ৩৯ মিটার দীর্ঘ। নিচের পাথরটির ওপর যে পাথরটি অদ্ভুতভাবে ভারসাম্য বজায় রেখে দাঁড়িয়ে আছে, তার দৈর্ঘ্য প্রায় ১৭ মিটার।

ব্যালান্সড রক, কলরাডো :
আমেরিকাতেই কলরাডোর গার্ডেন অব গডসে আছে এই অদ্ভুত পাথরটি। রাস্তার পাশে এর অবস্থান, তাই পর্যটকেরা এর পাশে দাড়িয়ে সহজে ছবি তুলতে পারেন।

ব্যালেন্সিং রক, নোভা স্কশিয়া :
কানাডার নোভা স্কশিয়া প্রদেশে লং আইল্যান্ডের সেইন্ট ম্যারি’স বে তে আছে এই পাথরটি। দেখুন কী অদ্ভুত অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছে! ৯ মিটার লম্বা এই পাথরটি আরেকটি পাথরের প্রান্তে দাঁড়িয়ে আছে অস্বাভাবিকভাবে।

আইডল রক, ব্রিমহাম মুর :
ইংল্যান্ডের ব্রিমহাম মুর এলাকায় আছে অনেকগুলো অদ্ভুত পাথর। প্রাকৃতিক কারণে পাথরগুলো ক্ষয় হয়ে আশ্চর্য আকার ধারণ করেছে। তাদের একটি হলো আইডল রক। ছোট্ট  পাথরের ওপর কোনো এক দৈব শক্তির মাধ্যমে দাঁড়িয়ে আছে এটি।

মাশরুম রক, কানসাস :
আমেরিকার কানসাসে মাশরুম রক স্টেট পার্কে অনেকগুলো পাথরের মধ্যে আছে মাশরুম আকৃতির দুটি পাথর। সেগুলোর পাশে বিশাল জুতার আকৃতির আরেকটি পাথর আছে। দেখতে সত্যিই অদ্ভুত লাগে।

চিরেম্বা রকস, জিম্বাবুয়ে :
জিম্বাবুয়ের রাজধানী  হারারের ১৩ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে আছে এই পাথরগুলো। দেশটির মুদ্রায় এই পাথরগুলোকে তুলে ধরায় বাইরের মানুষ এখন এদের সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হয়ে উঠেছে।

কেজেরাগবোল্টেন, নরওয়ে :
প্রায় ১৫ বর্গফুট আয়তনের কেজেরাগবোল্টেন পাথরখণ্ডটি নরওয়ের কেজেরাগ পর্বতের দুটি বিশাল পাথরের মাঝখানে আটকে আছে। মাটি  থেকে প্রায় ৩০০০ ফুট ওপরে আছে এই পাথরটি। সেখানে দাঁড়াতে হলে অবশ্যই অনেক সাহসী হতে হবে।
 
ভাসমান পাথর : সৌদি আরবের আল হাসা এলাকায় একটি অদ্ভুত পাথর আছে। এটি নাকি বছরের একটি নির্দিষ্ট সময়ে হাওয়ায় ভেসে থাকতে পারে! প্রতিবছর এপ্রিল মাসে পাথরটি মাটি থেকে ১১ সেন্টিমিটার ওপরে ৩০ মিনিট ধরে ভেসে থাকে, এমন কথা বলছেন স্থানীয়রা। তাদের দাবি, ১৯৮৯ সালের এপ্রিলে পুলিশের গুলিতে এক মুজাহিদ শহীদ হন এই পাথরের সামনে। এর পর থেকে এমন ব্যাখ্যাতীতভাবে নাকি ভাসে পাথরটি।

Googleplus Pint
Hasan
Administrator
Like - Dislike [kkstarratings]

পাঠকের মন্তব্য