৮টি ভালো অভ্যাস যা বাদ দিতে হবে (পর্ব ১)

স্বাস্থ্যগত Feb 24, 2018 610 Views
Googleplus Pint

ভালো অভ্যাস আবার বাদ দেয়ার জিনিস নাকি?
এমন যারা ভাবছেন, তাদের একটা কথা মনে করিয়ে দিতে হয়। ‘অতি ভালো ভালো নয়’- এমন একটা কথা আমাদের গুরুজনদের প্রায়ই বলতে শোনা গেছে। কথাটা সু-অভ্যাসের চর্চার ক্ষেত্রেও খাটে। আপনি স্বাস্থ্যসচেতন বলে প্রতিদিনই হয়তো কিছু ভালো অভ্যাসের চর্চা করে থাকেন। তবে সেটা ‘অতিরিক্ত’ হয়ে যাচ্ছে না তো? দেখে নিন-

১। অতিরিক্ত স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া

ওমেগা থ্রী ধরনের স্বাস্থ্যকর ফ্যাট যেসব খাদ্যে আছে, সেগুলো নিঃসন্দেহে আপনার স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। এই ফ্যাটগুলো পাওয়া যায় আখরোট, বাদাম, ডিম বা পিনাট বাটারের মত খাবারগুলোতে। তাই নিজের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে এই খাবারগুলো খাওয়া খুবই জরুরী। তবে এর মানে এই নয় যে এগুলো আপনি যত ইচ্ছা খেতে থাকবেন। এভাবে চলতে থাকলে আর ওজন কমানো হবে না আপনার কোনদিনও।

২। ব্যথা না লাগা পর্যন্ত স্ট্রেচিং করা

এক্সারসাইজ করার পর স্ট্রেচিং করে নিলে শরীরের নমনীয়তা বাড়ে, সারাদিন অনেক সচল থাকা যায়। ফলে পুরো দিনটাই ভালো যায়। এ কারণে আপনি স্ট্রেচিং-এর ব্যাপারে কোন ছাড় দেন না। এটা খুবই ভালো অভ্যাস। কিন্তু আপনি যদি এই স্ট্রেচিং অতিমাত্রায় করে ফেলেন, সেটা কিন্তু আপনার শরীরে মারাত্মক ক্ষতি করে ফেলতে পারে। তাই অনেকক্ষণ সময় নিয়ে বা শরীরকে অনেকটা টেনে নিয়ে স্ট্রেচিং করার অভ্যাস থাকলে সতর্ক হোন। আর খানিকটা হাত-পা নাড়িয়ে না নিয়ে তো এটি করাই যাবে না।

৩। ওয়ার্কআউট থেকে একদিনও ছুটি না নেয়া

ওয়ার্কআউট যে সুস্বাস্থ্যের জন্য কতটা জরুরী, আমরা জানি। তেমনই জরুরী প্রয়োজন মতো ওয়ার্কআউট থেকে বিরতি নেয়া। কিছুটা বিশ্রাম না নিলে ওয়ার্কআউটের পরিশ্রমগুলো ক্লান্তিকর মনে হতে পারে আপনার। তখন আশানুরূপ ফলও আপনি পাবেন না। একই ধরণের শরীরচর্চা করার সময় মাঝেমধ্যে দুই থেকে তিনদিনের বিরতি নিন। এতে ভালো ফলই পাবেন।

৪। ভালোবাসেন ফলের রস

সকালের নাস্তায় ফলের রস করে খাওয়া আপনার অন্যতম পছন্দের একটা অভ্যাস। ব্যাপারটি যে স্বাস্থ্যকর, সে ব্যাপারে তো কোন সন্দেহই নেই। কিন্তু একবার কি ভেবে দেখেছেন, জ্যুসারের সাহায্য ফলের রস করে খেতে গিয়ে কী মূল্যবান জিনিস বিসর্জন দিচ্ছেন আপনি? আপনি বিসর্জন দিচ্ছেন ফলের মধ্যে যে আঁশ জাতীয় অংশটা থাকে তার পুরোটাই। ফলে এর গুণাগুণগুলো থেকে পুরোপুরিই বঞ্চিত হচ্ছেন আপনি।

Googleplus Pint
Abir
Author
Like - Dislike [kkstarratings]

পাঠকের মন্তব্য