Likebd.com

‘পরানডা ছিঁড়া যাইতাছে বইন’

বিডিলাইভ ডেস্ক: সৌদি থেকে দেশে ফিরে এয়ারপোর্টেই ভয়াবহ প্রতারণার শিকার হয়ে সবকিছু খুইয়েছিলেন জয়পুরহাটের রুবিনা বেগম। তবে তার মেধা এবং অত্যান্ত সাহস দিয়ে তিনি তার হারিয়ে যাওয়া সবকিছু ফেরত পেয়েছেন সাথে সেই প্রতারণাকারীকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনির হাতে তুলে দিয়েছেন। এ ঘটনাটির বিস্তারিত বর্ণনা দিয়ে ”ম্যাজিস্ট্রেটস অল এয়ারপোর্টস অব বাংলাদেশ” নামের ফেসবুক গ্রুপে একটি পোস্ট করেছেন শাহজালাল […]

লাইকবিডি ডেস্ক: সৌদি থেকে দেশে ফিরে এয়ারপোর্টেই ভয়াবহ প্রতারণার শিকার হয়ে সবকিছু খুইয়েছিলেন জয়পুরহাটের রুবিনা বেগম। তবে তার মেধা এবং অত্যান্ত সাহস দিয়ে তিনি তার হারিয়ে যাওয়া সবকিছু ফেরত পেয়েছেন সাথে সেই প্রতারণাকারীকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনির হাতে তুলে দিয়েছেন।

এ ঘটনাটির বিস্তারিত বর্ণনা দিয়ে ”ম্যাজিস্ট্রেটস অল এয়ারপোর্টস অব বাংলাদেশ” নামের ফেসবুক গ্রুপে একটি পোস্ট করেছেন শাহজালাল এয়ারপোর্টের ম্যাজিস্ট্রেট।

নিচে পোস্টটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

”সৌদি প্রবাসী রুবিনা। দেশে রেখে যাওয়া অসুস্থ বাচ্চার অপারেশন করাতে বৃহস্পতিবার সকাল ঢাকায় পৌঁছান। এয়ারপোর্ট থেকে বের হয়ে পার্কিং এরিয়ায় ঢুকতেই..

– বইন কই যাবা?
– জয়পুর হাট
– আরে কও কি বইন! আমার বাড়ি দিনাজপুরের হিলি! আমিও ঐ দিক যামু
– এয়ারপোর্টে কেনো আসছেন?
– একমাত্র বইনকে এট্টু আগে দুবাইতে পাঠাইয়া দিলাম। পরানডা ছিঁড়া যাইতাছে বইন:(

কাছাকাছি এলাকার অপরিচিত তাজুলকে পেয়ে রুবিনা মনে জোর পেলেন। একসাথে বাসে উঠে গাবতলীর উদ্দেশ্যে রওয়ানা হলেন। পথিমধ্যে ভাই-বোন অনেক সুখ-দুঃখের গল্পও করলেন। স্বামীর সাথে ডিভোর্স, একমাত্র বাচ্চার মায়া ছেড়ে বাচ্চার ভবিষ্যত গড়তেই বিদেশ গমন, আরও কতকি!

ফার্মগেটে বাস পরিবর্তন। রুবিনার ক্ষুধা পেয়েছে। ভাই তাজুল চট করে পাউরুটি আর পানি কিনে নিয়ে আসলেন। রুবিনা টাকা দিতে চাইলে তাজুল দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে বললেন, “তুমি সত্যই আমার বোন হলে আজ এমন করে টাকা দিতে চাইতে না। আসলে পর কখনো আপন হয় না :(“

বাস গাবতলীর পথে। রুবিনা পাউরুটি খেয়ে বোতলের মুখে পানি খেতে গিয়ে একটু পানি মুখ বেয়ে পড়ছিলো। ভাই তাজুল নিজের রুমাল বের করে সযত্নে পানি মুছে দিলেন।

রুবিনা বুঝতে পারছে, রুমালের ছোঁয়ায় তার সেন্স কমে আসছে, চোখ বন্ধ হয়ে আসছে। ভাই সাহেব রুবিনার ভ্যানিটি ব্যাগ খুলে সবগুলো টাকা পকেটে ঢুকাচ্ছেন। রুবিনা চেয়ে চেয়ে দেখছেন, কিন্তু কিছুই বলতে পারছেন না। রুমালের জাদুতে হ্যাং হয়ে স্ট্যাচু বনে গেছেন।

তাজুল টাকা মোবাইলসহ দামী জিনিষপত্র নিয়ে ভাইয়ের আদরে রুবিনার মাথায় হাত বুলিয়ে নেমে পড়লেন। মিনিট পাঁচেক পর রুবিনার হাতমুখ সচল হলেও কান্না ছাড়া কোনও গতি নেই।

বাচ্চার হার্নিয়ার অপারেশন করতে আনা সবগুলো টাকা উধাও। বাস ভাড়া দেয়ার টাকাও নেই। পাশের এক ভদ্রলোক এক’শ টাকা দিয়ে সাহায্য করলেন।

রুবিনা ঘুরে দাঁড়ালেন। বাস থেকে নেমে ভ্যানিটি ব্যাগ ঘেটে ঢাকায় শম্পার বাসার ঠিকানা লেখা কাগজটা বের করলেন। শম্পা তার সাথে সৌদিতে কাজ করে। সাত আট দিন আগে দেশে আসছে।

শম্পার বাসা থেকে রুবিনা পরপর তিনদিন এয়ারপোর্ট এলাকায় চিরুনি অভিযানে আসেন। আজ চতুর্থ দিন তিনি সফল, ভাই তাজুল তার চোখ এড়াতে পারেননি।

ঠিক একই জায়গায় আজ তাজুল আরেক বিদেশ ফেরত পুরুষ যাত্রিকে বলছিলেন, “একটু আগে ছোট ভাইটারে বিদেশ পাঠাইলাম 🙁 পরানডা..”

‘পরানডা ছিঁড়ার’ আগেই বাঘিনীর মত ক্ষীপ্র বেগে রুবিনা তার কলার ধরে উত্তম মধ্যম দেয়া শুরু করেন এবং এপিবিএনে সোপর্দ করেন।

রুবিনা টাকা উদ্ধার করে জয়পুর হাটে চলে গেছেন। তাজুল দুই বছরের জন্য কেরানীগঞ্জে বেড়াতে গেছেন।”

রুবিনার সাহসিকতায় মুগ্ধ সবাই। এ পোস্টের নিচে অসংখ্য লোক তাকে স্বাগত জানিয়ে মতামত ব্যক্ত করেছেন।

মাহিয়া শারমিন নামের একজন লিখেছেন, ”একজন মা কখনওই হার মানে না। তাজুল মিয়ার সামনে এবার একজন মা ছিল, এত বছর চিট করে পার পাইছে। কিন্তু হার্নিয়া আক্রান্ত বাচ্চার মা তাজুলকে ছেড়ে দেয়ার পাত্রী নন। তাজুলের ফাসি চাই না। দুই বছর পর শিক্ষা পেয়ে মানুষ হয়ে ফিরুক।”

ইঞ্জি. রফিকুল ইসলাম নামে আরেকজন লিখেছেন, ”এ যেন কোন সিনেমার গল্প! বোন রুবিনাকে তার সাহসিকতার জন্য পুরস্কৃত করা উচিৎ।”

Originally posted 2017-07-30 03:02:32.

Hasan

I Love likebd.com

Add comment

Categories

June 2020
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  
June 2020
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930