শিক্ষনীয় গল্প

কাঠের প্লেটঃ
একজন বৃদ্ধা তার ছেলে বউ ছেলে ও নাতীর সাথে বসবাস করতেন। বৃদ্ধা এতই দুর্বল ছিলেন যে, ঠিকমত চলতেও পারতেন না, চোখে কম দেখতেন। তাঁর হাতটিও কাঁপতো, ঠিকমত কিছু ধরতেও পারতেন না। বৃদ্ধা রাতের বেলায় ছেলে বউ ও ছেলের সাথে যখন খেতে বসতেন তখন প্রায়ই কোন না কোন অঘটন ঘটাতেন। কোনদিন হয়তো হাত কাঁপার ফলে দুধের গ্লাস পরে টেবিল নষ্ট করতেন, কখনো তরকারি ফেলে মেঝে নষ্ট করতেন। প্রতিদিন এমন ঝামেলা হওয়ার কারনে ছেলে তার মা ‘র জন্য একটি টেবিল বানিয়ে ঘরের এক কোণে খেতে দিতেন। কাঁচের প্লেট মা ‘র হাত কেঁপে পরে গেলে, ছেলে তার মায়ের জন্য একটি কাঠের প্লেট বানিয়ে এনে দিলেন। মা একা একা বসে খেতেন আর চোখের পানি ঝড়াতেন।বৃদ্ধার নাতী প্রতিদিন এটা খেয়াল করতেন, আজকেও সেটা দেখলেন এবং পরেরদিন সে একটি কাঠের টুকরো নিয়ে কি যেনো তৈরি করছিলেন, এমন সময় তার বাবা তাকে জিজ্ঞেস করলেন, কি তৈরি করছো বাবা? ছেলেটি উত্তর দিলেন, বাবা মা যখন বৃদ্ধা হয়ে যাবে দাদীর মত তখন মা ‘কে খেতে দেয়ার জন্য কাঠের প্লেট আর টেবিল তৈরি করছি।ছেলের এমন কথা শোনে এবার তিনি নিজের ভূল বুঝতে পারলেন এবং ঠিক করলেন স্বামী স্ত্রী মিলে যে, এখন থেকে তারা মা ‘কে খাওয়ানোর পর নিজেরা খাবেন।
বাবা – মা বৃদ্ধ হয়ে গেলেও তাদেরকে কোন রকমেই অবহেলা করা যাবেনা। আল্লাহ আমাদেরকে বাবা – মা’র খেদমত করে তাদেরকে খুশী করার তাওফিক দিন ….আমিন।

Be the first to comment on "শিক্ষনীয় গল্প"

Leave a comment

Skip to toolbar