Likebd.com

দলবদলে সরগরম ফুটবল বাজার

বিডিলাইভ ডেস্ক: প্রান্তসীমায় ইউরোপিয়ান ফুটবলের মৌসুম। চলতি মাসটা শেষ হলেই নতুন দিনের আবহ উঁকি দেবে বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কিংবা বায়ার্ন মিউনিখের মত বিশ্বখ্যাত ক্লাবগুলোতে। কেউ পুরনো ঘর ছাড়বেন, কেউ আবার নতুন করে ঘর বাঁধবেন। আশা-যাওয়ার এই খেলায় জমে উঠেছে ফুটবল বাজার। দরদাম হাঁকিয়ে পছন্দের ফুটবলারকে দলে ভেড়ানো কিংবা প্রিয় তারকাতে ধরে রাখার চেষ্টায় […]

লাইকবিডি ডেস্ক: প্রান্তসীমায় ইউরোপিয়ান ফুটবলের মৌসুম। চলতি মাসটা শেষ হলেই নতুন দিনের আবহ উঁকি দেবে বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কিংবা বায়ার্ন মিউনিখের মত বিশ্বখ্যাত ক্লাবগুলোতে। কেউ পুরনো ঘর ছাড়বেন, কেউ আবার নতুন করে ঘর বাঁধবেন। আশা-যাওয়ার এই খেলায় জমে উঠেছে ফুটবল বাজার। দরদাম হাঁকিয়ে পছন্দের ফুটবলারকে দলে ভেড়ানো কিংবা প্রিয় তারকাতে ধরে রাখার চেষ্টায় কারো থেকে কেউ কম যাচ্ছে না।

জেমস রদ্রিগেজ

তাকে নিয়ে আলোচনাটা কম দূর গড়ায়নি। আবারও স্পেনের বেশ কয়েকটা গণমাধ্যমের শিরোনামে রিয়াল তারকা রদ্রিগেজের নাম। কলম্বিয়ান এই ফুটবল সারথিকে চাচ্ছে দুই ইংলিশ ক্লাব, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এবং চেলসি। নতুন মৌসুমে কোথায় হবে তার ঠিকানা? খুব করে আগ্রহ দেখাচ্ছেন হোসে মরিনহোর দল। অবশ্য রদ্রিগিজ আগেই বলে রেখেছেন, রিয়ালে সুখে আছেন তিনি।

লিওনার্দো বানুচি

জুভেন্টাসের রক্ষণভাগ যে কতটা শক্তিশালী সেটা ভালো করেই জানা ফুটবল বিশ্বের। সে জন্য হয়তো জুভিদের রক্ষণভাগের রক্ষকদের দিকে চোখ পড়েছে রিয়াল মাদ্রিদ বস জিনেদিন জিদানের। আসছে মৌসুমে জুভেন্টাসের সেন্টার ব্যাক লিওনার্দো বানুচিকে দলে টানতে আদা জল খেয়ে নেমেছেন লস ব্লাঙ্কোস কোচ।

লুকাস লিমা

ফ্রি টান্সফার উইন্ডোতে ব্রাজিলিয়ান তরুণ তুর্কী লুকাস লিমার সঙ্গে চুক্তি করতে চায় স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা। দাবি ব্রাজিলের জনপ্রিয় দৈনিক মার্কার। মিডফিল্ডারের ঘাটতি রয়েছে মেসিদের, এমন আলোচনা বহুদিন থেকে। তাই আসছে মৌসুম শুরু করার আগে একজন তারকা মিডফিল্ডারকে দলে নিতে চাচ্ছেন কাতালানরা। যদিও এই তালিকায় আছেন ডি মারিয়া। মেসির টানেই বার্সার পানে যেতে আগ্রহী এই আর্জেন্টাইন প্লেমেকার।

জো হার্ট

ম্যানচেস্টার সিটির গোল হেফাজতের কারিগর। ছাড়ছেন না সিটিকে। আগামী মৌসুমেও সিটিজেনদের সঙ্গে থাকতে চান তিনি। যদিও তাকে টানতে বেশ কয়েকটি ক্লাব আনাগোনা করছে। দেখাচ্ছে মোটা অঙ্কের অর্থের লোভও। তাতে টনক নড়ছে না জো হার্টের। এখন পর্যন্ত খবর এতটুকুই, পেপ গার্দিওলার অধীনেই আরেক মৌসুম কাটাতে ইচ্ছুক জো হার্ট।

জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ

গত মৌসুমে পিএসজি ছেড়ে যোগ দেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। সেই ঘরও বোধহয় ছাড়তে হচ্ছে। আসছে মৌসুমে তাকে কিনতে চাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। তবে ইব্রা কি তার প্রিয় গুরু মরিনহোকে ছেড়ে চলে আসবেন রিয়ালে? উঠেছে এমন প্রশ্নও। শেষটা দেখার অপেক্ষায় আছেন ভক্তরা। তবে যতটুকু খবর আছে, ম্যানইউ কিছুতেই ইব্রাকে হারাতে চাচ্ছে না। তাকে নিয়েই নতুন মৌসুম শুরু করতে চাচ্ছে মরিনহোর দল।

আলেক্সিস সানচেজ

চিলি তারকাকে আর্সেনাল থেকে ভাগিয়ে আনার চেষ্টা করছে রিয়াল মাদ্রিদ। তাতে এখনও কান দেননি আলেক্সিস সানচেজ। গুঞ্জন উঠেছে, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো রিয়াল ছাড়লে তার বিকল্প হিসেবে সানচেজকে কিনে নেবে রিয়াল। দারুণ কারিশমা আর সুনিপুণ দক্ষতার বদৌলতে সবার নজর কেড়েছেন সানচেজ। কেবল রিয়ালই নয়, নতুন মৌসুমে তাকে পেতে দৌড়ঝাঁপ দিচ্ছে আরও কয়েকটি ক্লাব।

রবার্ট লেভানডফস্কি

বায়ার্নের প্রাণ তিনি। দলকে বুন্দেসলিগা জেতাতে দুর্দান্ত অবদান তার। তাকে এত সহজেই ছাড়বে বাভারিয়ানরা? লেভানডফস্কির নৈপুণ্যে নজর পড়ছে চেলসির। ইংলিশ লিগে একচেটিয়া আধিপত্য ধরে রাখতে পোলিশ সুপারস্টারকে কিনতে আগ্রহী ব্লুজরা। আশেপাশে ঘোরাফেরা করছে আরও কয়েকটা ক্লাবও।

রিয়াদ মাহরেজ

লেস্টার সিটির রূপকথার নায়কদের একজন তিনি। গত মৌসুমের আগে লেস্টারকে শিরোপা উপহার দেয়ার অন্যতম অংশীদার মাহরেজ। জেমি ভার্ডির কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে তলানির লেস্টার চড়ে বসে সবার মাথায়। ছিনিয়ে নেয় সেরার মুকুট। সেই শিরোপা জয়ের নায়ককে আসছে মৌসুমে দলে আনতে চাচ্ছে চেলসি।

দানি আলভেজ

জুভেন্টাস ছাড়ছেন দানি আলভেজ। খবরটা গেল সপ্তাহের। ডিফেন্ডার দানি আলভেজের ক্লাব ছাড়ার বিষয়টি ইতোমধ্যে নিশ্চিত করেছেন জুভির প্রধান নির্বাহী গিওসেপে মারোত্তাও। জুভেন্টাস ছেড়ে ম্যানসিটিতে পা দেবেন আলভেস। অথচ ম্যানচেস্টার সিটি এনিয়ে কোনো সাড়া শব্দ করছে না। তবুও এখনই বলা যায় না, আলভেজ থাকছেন নাকি যাচ্ছেন।

প্রসঙ্গত, প্রতি মৌসুমের মেয়াদ ১০ মাস। সেপ্টেম্বর থেকে জুন পর্যন্ত চলে একটি মৌসুম। প্রত্যেকটি দল একে-অপরের বিপক্ষে নিজ মাঠ ও অন্যের মাঠে লড়াই করে।  প্রত্যেক দল ৩৮টি করে ম্যাচ খেলে। জয়ে ৩ পয়েন্ট,  ড্রয়ে ১ পয়েন্ট এবং পরাজিত হলে ফিরতে হয় খালি হাতে। দলীয় অবস্থান নির্ধারিত হয় সর্বমোট পয়েন্টের মাধ্যমে। সর্বোচ্চ পয়েন্ট অর্জনকারী দল চ্যাম্পিয়নের মর্যাদা লাভ করে।

Add comment

Follow us

Don't be shy, get in touch. We love meeting interesting people and making new friends.

Most discussed