Likebd.com
একটু সচেতনতায় কর্মক্ষেত্রেও হবে বিদ্যুৎ সাশ্রয়

একটু সচেতনতায় কর্মক্ষেত্রেও হবে বিদ্যুৎ সাশ্রয়

বিডিলাইভ রিপোর্ট: আপনি যদি আপনার অফিসকে শক্তিবান্ধব করে তুলতে চান তাহলে কেবল আপনার একার উদ্যোগে কিছুই হবেনা। চেষ্টা করতে হবে নিজের সচেতনতাকে সবার ভেতরে ছড়িয়ে দিতে। আপনি হয়তো অফিসে থাকবেননা। কিন্তু আপনার অবর্তমানেও যেন সাশ্রয় হয় বিদ্যুতের। আর সে কারণেই সচেতনতাটা ছড়িয়ে দিতে হবে সবার মাঝে১. সব কর্মীরাই যেন ঘর থেকে বেরোবার সময় সব সুইচ […]

লাইকবিডি রিপোর্ট: আপনি যদি আপনার অফিসকে শক্তিবান্ধব করে তুলতে চান তাহলে কেবল আপনার একার উদ্যোগে কিছুই হবেনা। চেষ্টা করতে হবে নিজের সচেতনতাকে সবার ভেতরে ছড়িয়ে দিতে। আপনি হয়তো অফিসে থাকবেননা। কিন্তু আপনার অবর্তমানেও যেন সাশ্রয় হয় বিদ্যুতের। আর সে কারণেই সচেতনতাটা ছড়িয়ে দিতে হবে সবার মাঝে

১. সব কর্মীরাই যেন ঘর থেকে বেরোবার সময় সব সুইচ বন্ধ করে দেয়, খেয়াল রাখে শক্তি সাশ্রয়ের দিকে সেভাবে তাদেরকে অভ্যস্ত করে তুলুন।

২. লক্ষ্য রাখুন যেন অফিসে ব্যবহৃত কোন যন্ত্রপাতি, যেমন- এয়র কুলার বা হিটিং সিস্টেমে ত্রুটি না থাকে। কারণ ত্রুটিযুক্ত যন্ত্রপাতি স্বাভাবিকের চাইতে বেশি বিদ্যুৎ খরচ করে। টাকা খরচ হওয়ার ভয়ে অনেক সময় প্রায় নষ্ট হয়ে যাওয়া যন্ত্রকেও ব্যবহার করি আমরা। কিন্তু এভাবে আপনি আপনার খরচ তো কমাতেই পারবেন না, বরং আরো বাড়বে সেটা।

৩. শীত কিংবা গরম- সব মৌসুমেই দরজা বা জানলাগুলো বন্ধ রাখলে সেটা আপনার ঘরকে আরামদায়ক হতে সাহায্য করবে। এছাড়া দরজা বা জানালা বন্ধ করলে সেটা আপনার এসি বা হিটারের খরচটাকেও কমাবে। দ্রুত কাজ করবে সেগুলো।

৪. যখনই কোন মনিটর, পিসি, ফ্যাক্স মেশিন, প্রিন্টার বা কোন নতুন যন্ত্র কিনবেন লক্ষ্য রাখুন সেটা যেন এনার্জি স্টার মডেল হয়। এতে করে নির্দিষ্ট সময় না চালানো হলে সেটার শক্তি ব্যবহার বন্ধ হয়ে যাবে নিজ থেকেই। লেজার প্রিন্টারের বদলে ইনকজেট প্রিন্টার ব্যবহার করুন। এতে করে শতকরা ৯০ শতাংশ পর্যন্ত শক্তি কম খরচ হবে। এনার্জি রেটিং লেভেলের দিকে খেয়াল রাখুন। হয়তো একটু বেশি দাম পড়বে। তবে পরবর্তীতে এই বেশি তারকাচিহ্ন সম্বলিত যন্ত্রগুলোই আপনার অপচয় কমিয়ে আনবে।

৫. অফিসে ব্যবহৃত যন্ত্রপতি, যেমন- প্রিন্টার বা ফটোকপি মেশিনে শক্তি সাশ্রয়ের জন্যে কিছু পদ্ধতি দেওয়া থাকে। যেগুলো মেনে যন্ত্রটি চালালে শক্তি অনেকটাই কম খরচ হয়। কর্মীদেরকে সেই পদ্ধতিটি জানান যাতে করে তারাও কম শক্তি খরচ করে কীভাবে যন্ত্রটি চালাতে হয় সেটা বুঝতে পারে।

৬. খুব দরকার না হলে বারবার প্রিন্ট করা থেকে বিরত থাকুন। কারণ এতে করে কেবল বিদ্যুত্ খরচ হয়না, কাগজও নষ্ট হয় কম।

৭. দিনের বেলা অফিসে আলো না জ্বালানোর চেষ্টা করুন। সৌরবিদ্যুৎ বর্তমানে বেশ জনপ্রিয় ও সুলভ বৈদ্যুতিক উৎস। তাই অফিসে সৌরবিদ্যুতের প্যানেল লগানোর চেষ্টা করুন। এতে করে আপনার খরচ কমে যবে অনেকটা। শক্তিরও সাশ্রয় হবে।

Add comment

Most discussed