পুরাতন বান্ধবীর মৃতদেহ ফ্রিজে রেখে নতুনের সঙ্গে বসবাস

আন্তর্জাতিক Aug 04, 2017 217 Views
Googleplus Pint
noimage

লাইকবিডি ডেস্ক: পুরাতন বান্ধবীকে খুন করে মৃতদেহ ফ্রিজে রেখে নতুন বান্ধবীর সঙ্গে বসবাস শুরু করেন এক ব্যক্তি। নতুন বান্ধবী আবার থাকত মৃত বান্ধবীর পরিচয়ে।

ঘটনাটি ঘটেছে আমেরিকার ওহিও শহরে।

স্থানীয় ইয়োংসটাউন এলাকার কাছে একটি বাড়িতে উদ্ধার হয়েছে মৃত শ্যানন গ্রেভসের দেহ। গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্ত আর্তুরো নোভোয়া ও তার নতুন বান্ধবী ক্যাটরিনা লেটনকে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে মৃতদেহের অপব্যবহারের অভিযোগ আনা হয়েছে।

শ্যানন গ্রেভসকে শেষ দেখা যায় ফেব্রুয়ারি মাসে। জুন মাসে তার পরিবার পুলিশে রিপোর্ট করে। তার বোন বলেন, শ্যানন মাঝে মধ্যেই পরিবারকে না জানিয়ে দীর্ঘদিন নিখোঁজ থাকতেন। তাই প্রথমে এ নিয়ে কিছু মনে হয়নি তাদের। কিন্তু নিজের গাড়ি, কুকুর আর ফোন রেখে যাওয়ায় তাদের সন্দেহ হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, নোভোয়ার সঙ্গে গত মাসেই ক্যাটরিনা ওহাইওর ইয়োংসটাউনে আসেন। সেখানে আসার পর থেকেই নোভোয়ার প্রাক্তন প্রেমিকা সেজে থাকতে শুরু করেন ক্যাটরিনা। এমনকি নোভোয়ার প্রাক্তন প্রেমিকার গাড়ি ও কুকুরটিও তার কাছেই ছিল। নোভোয়ার প্রাক্তন প্রেমিকার নিখোঁজের খবর কেউ যেন জানতে না পারেন সেজন্যই এমন করেছিলেন ক্যাটরিনা।

এই ঘটনার কিছুদিন পরেই ঘরে বিদ্যুতের সমস্যার অজুহাত দেখিয়ে সদ্য কেনা ফ্রিজটি বাড়িওয়ার বেসমেন্টে রাখার অনুমতি চান নোভোয়া। বাড়িওয়ালাকে তিনি জানান, ফ্রিজে রাখা মাংস খারাপ হয়ে যাক তা তিনি চান না। কিন্তু ফ্রিজটি বন্ধ থাকায় সন্দেহ হয় বাড়িওয়ালার স্ত্রীর এবং ফ্রিজটি ভাঙার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। ফ্রিজ ভাঙতেই গন্ধে ভরা ওই প্যাকেটগুলো দেখতে পান তিনি।

তদন্তকারিরা বলছেন, ফ্রিজে যে প্যাকেটবন্দী মৃতদেহের টুকরো পাওয়া গেছে তা নোভোয়ার প্রাক্তন প্রেমিকার। তবে তার মৃত্যুর কারণ এখনও জানা যায়নি। নোভোয়ার চেয়েছিলেন ক্যাটরিনা শুধুমাত্র কিছুদিনের জন্য শ্যাননের ভূমিকা পালন করুক।

তাই ক্যাটরিনাকে শ্যাননের ফোন, গাড়ি এমনকী শ্যাননের কুকুরটিও তাকে দেয়া হয়েছিল। পুলিশের কাছে নোভোয়ার জানিয়েছেন, জুলাই মাসেই সে ফ্রিজটি কিনেছে।

Googleplus Pint
Like - Dislike
Rate this post

পাঠকের মন্তব্য