বুধবার , জানুয়ারী 17 2018
Home / স্বাস্থ্যগত / কোষ্ঠকাঠিন্য

কোষ্ঠকাঠিন্য

কোষ্ঠকাঠিন্য খুব পরিচিত একটি সমস্যা এবং এই
সমস্যাটি সব বয়সের মানুষদেরই হয়ে থাকে।
কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যার কারণে দেহে দেখা দিয়ে
থাকে নানা ধরণের সমস্যা যেমন- এসিডিটি, ক্ষুধা,
নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ, মাথা ব্যথা, বিষণ্নতা, ব্রণ, এবং
মুখে আলসার। এই সমস্যা আপনি চাইলে খুব সহজেই
ঘরে বসে সমাধান করতে পারেন। জেনে রাখুন
তাহলে এই সমস্যা সমাধানের উপায়গুলো।
লেবু
লেবুর রস কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা রোধ করতে খুব
সহায়তা করে থাকে।
-হালকা কুসুম গরম পানিতে তে লেবু চিপে নিন।
চাইলে এতে সামান্য লবণ ও মধু মিশিয়ে খেতে
পারেন।
সকালে একদমই খালি পেটে লেবু পানি খেয়ে নিন।
আবার সন্ধ্যার দিকে আরেক গ্লাস খান।
-এই পানীয়টি প্রতিদিন নিয়ম করে খান দেখবেন খুব
দ্রুতই কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা সেরে যাবে।
ক্যাস্টর অয়েল
কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা রোধ করার অন্যতম সহজ উপায়
হল ক্যাস্টর অয়েল। সকালে খালি পেটে ২ চামচ
ক্যাস্টর অয়েল খেয়ে নিন। দেখবেন খুব দ্রুতই আপনার
পেটের সমস্যা রোধ হয়ে যাবে। চাইলে কোন ফলের
জুসের সাথে ক্যাস্টর অয়েল মিশিয়ে খেতে
পারেন।
মধু
কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা দূর করতে প্রিতিদিন মধু খেতে
ভুলবেন না। এই সমস্যায় মধু খুব উপকারী।
-প্রতিদিন ২/৩ বার এক চামচ করে মধু খান।
-কুসুম গরম পানির সাথে লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে
মিশ্রণটি খেয়ে নিন। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে
এই মিশ্রণটি খেয়ে নিন।
পালং শাক
হজমশক্তি বৃদ্ধি করতে পালং শাক এর উপকারিতা
অনেক বেশি। বিশেষ করে যখন আপনার
কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা দেখা দিবে তখন পালং শাক
খেতে ভুলবেন না।
১। কোষ্ঠ কাঠিন্য সমস্যা রোধ করতে প্রতিদিনের
খাদ্য তালিকায় পালং শাক রাখুন। আপনি চাইলে
এটি সালাদের মতো করে খেতে পারেন কিংবা
রান্না করেও খেতে পারেন।
২। যদি আপনার কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা খুব বেশি
জটিল আকার ধারণ করে থাকে তাহলে, পালং শাক
জুস বানিয়ে অর্ধেক পানির সাথে মিশিয়ে
প্রতিদিন ২ বেলা নিয়ম করে খেয়ে নিন। আপনার এই
সমস্যা দ্রুত সমাধান হয়ে যাবে।

Share With

About Md.ArifurRahman

arifkh090@gmail.com'
I am simple boy...Nating to say

Check Also

আমলকির রসে যত গুনাগুন

আমলকির বহুবিধ গুণ। ত্বক ডিটক্স করার জন্য আমলকির তুলনা হয় না। রক্ত পরিশ্রুতও করে আমলকি। …