Likebd.com

Bangladesh Latest Tips and Tricks Online Blog Community Place

বিশ্বের দ্রুতগামী ৫ সুপার কম্পিউটার

কম্পিউটার জগতে এরা এক একটি নক্ষত্র। সাধারণত যে কম্পিউটার আমরা ব্যবহার করে থাকি, তার থেকে কয়েকশো গুণ দ্রুত এবং অঢেল জায়গা বিশিষ্ট এগুলি। এক কথায় এরা সুপার কম্পিউটার।

১৯৬০ সালে কন্ট্রোল ডেটা কর্পোরেশনের ইঞ্জিনিয়ার সেমর ক্রে’র হাত ধরে প্রথম সুপার কম্পিউটার বাজারে আসে। এর পরের পাঁচ দশকে বিপুল পরিবর্তন ঘটে গিয়েছে কম্পিউটার জগতে। আবহাওয়া দফতর, পারমাণবিক প্ল্যান্টের মতো গুরুত্বপূর্ণ ডেটা নির্ভর সংস্থায় সুপার কম্পিউটারের অবদান অনস্বীকার্য।

বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগামী সুপার কম্পিউটারগুলি সম্বন্ধে জেনে নেওয়া যাক এক নজরে।

সানওয়ে তাইহুলাইট:- এই মুহূর্তে চিনের তৈরি সানওয়ে তাইহুলাইট বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুততম কম্পিউটার। সেরা পাঁচশোর তালিকায় এক নম্বরে রয়েছে সানওয়ে তাইহুলাইট। চিনের উসির ন্যাশনাল সুপার কম্পিউটিং সেন্টারের তত্ত্বাবধানে গত বছর জুলাইয়ে প্রকাশ পায় সুপার কম্পিউটারটি। ২০ পিটাবাইট (২০ লক্ষ গিগাবাইট) জায়গা সম্পন্ন এই কম্পিউটারটির গতি ৯৩.০১ পিটাবাইট ফ্লপস। কম্পিউটারটি তৈরি করতে খরচ পড়েছে ২৭ কোটি ৩০ লক্ষ মার্কিন ডলার।

তিয়ানহি-২:- দ্রুততম সুপার কম্পিউটার হিসেবে চিয়ানহি-২ তৈরি করে দ্বিতীয় স্থানেও রয়েছে চিন। ২০১৩ সালে সুপার কম্পিউটারটি নিয়ে আসে গুয়াংঝোর ন্যাশনাল সুপার কম্পিউটার সেন্টার। ১২.৪ পিটাবাইট (১২ লক্ষ ৪০ হাজার গিগাবাইট) ডেটা ধারণ করার ক্ষমতা রয়েছে এই কম্পিউটারের। তিয়ানহি-২ তৈরি করতে খরচ হয়েছে প্রায় ৩৯ কোটি মার্কিন ডলার। তিয়ানহি-২’র স্পিড প্রতি সেকেন্ডে ৩৩.৮৬ পিটাবাইট ফ্লপ।

ক্রে টাইটান:- তৃতীয় স্থানে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সুপার কম্পিউটার ক্রে টাইটান। বিজ্ঞান ভিত্তিক প্রোজেক্টের জন্য ওক রিজ ন্যাশনাল ল্যাবরেটরি এই সুপার কম্পিউটারটিকে ব্যবহার করছে। চিনের তৈরি প্রথম দু’টি সুপার কম্পিউটারের থেকে বেশি স্পেস রয়েছে এই কম্পিউটারের। ৪০ পিটাবাইট (৪০ লক্ষ গিগাবাইট) জায়গা সম্পন্ন কম্পিউটারের স্পিড রয়েছে ১৭.৫৯ পেটাবাইট ফ্লপ প্রতি সেকেন্ড (ফ্লোটিং-পয়েন্ট অপারেশনস)। টাইটান তৈরি করতে খরচ হয়ছে ৯ কোটি ৭০ লক্ষ মার্কিন ডলার।

আইবিএম সিকোয়া:- ৩ হাজার বর্গ ফুট জায়গা জুড়ে আইবিএম সিকোয়া সুপার কম্পিউটারটি রাখা রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লরেন্স লিভারমোর ন্যাশনাল ল্যাবরেটরিতে। ২০১২ সালে এই কম্পিউটারটি তৈরি করে আইবিএম সংস্থা। কম্পিউটারটি প্রায় ১৬.৩২ পিটাবাইট ফ্লপ প্রতি সেকেন্ড স্পিডে ডেটা ট্রান্সফার করতে পারে।

ফুজিটসু কে কম্পিউটার:- ফুজিটসু কে কম্পিউটার নামে পরিচিত জাপানের এই সুপার কম্পিউটারটি। এই কম্পিউটারের ডেটা ট্রান্সফারের স্পিড ১০.৫১ পিটাবাইট ফ্লপ প্রতি সেকেন্ড। ২০১১ সালের জুন মাসে ফুজিটসু তৈরি করে সুপার কম্পিউটারটি।

The Author

Hasan

Leave a Reply

Likebd.com © 2018